এবার কলাবাগান ক্লাবের সভাপতিসহ গ্রেপ্তার ৫

রাজধানীতে অবৈধ ক্যাসিনো, জুয়ার আড্ডা ও বারের বিরুদ্ধে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সর্বশেষ কলাবাগান ক্রীড়া চক্র ক্লাবে অভিযান চালিয়ে এর সভাপতি এবং বাংলাদেশ কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শফিকুল আলমসহ পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। সেইসঙ্গে জব্দ করা হয়েছে অস্ত্র, ইয়াবা ও জুয়া খেলার সরঞ্জাম।শুক্রবার সন্ধ্যার পর ওই ক্লাবে অভিযান চালানো হয়। যদিও আগে থেকেই ক্লাবটি ঘিরে রেখেছিল রযাস ব সদস্যরা এবং আটকের আগেই র‌্যাব কার্যালয়ে ডেকে নেওয়া হয় শফিকুল আলমকে। প্রায় দুই ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে সঙ্গে নিয়েই অভিযান চালায় র‌্যাব।র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গাউসুল আজমের নেতৃত্বে এই অভিযান চালানো হয়। জব্দ করা সরঞ্জামসমূহ ক্লাবটির সভাপতির অফিস কক্ষে পাওয়া যায়। জব্দ হওয়া বিদেশি পিস্তলটি অবৈধ ও এর কোনো লাইসেন্স নেই বলে জানা গেছে।শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে অভিযান শেষে ক্লাব প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান র‌্যাব-২–এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাল। এর আগে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সভাপতি শফিকুল আলমকে সঙ্গে নিয়ে এ অভিযান শুরু হয়।কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, রাজধানীতে অবৈধ ক্যাসিনো, জুয়ার আড্ডা ও বারের বিরুদ্ধে যে অভিযান চালানো হচ্ছে, তারই অংশ হিসেবে কলাবাগান ক্লাবে অভিযানটি চালানো হয়। অভিযানে বেশ কিছু জুয়া খেলার কয়েন, প্লেয়িং কার্ডের ৫৭২টি সেট, ৮০০ ভিন্ন ধরনের ইয়াবা, একটি বিদেশি পিস্তল, তিনটি গুলি, একটি ম্যাগাজিন জব্দ করা হয়। ক্যাসিনোর সরঞ্জাম এখানে ছিল না। তবে ক্যাসিনোতে ব্যবহার করা হয় এমন কয়েন পাওয়া গেছে।কর্নেল আশিক বলেন, ক্লাব থেকে হারুন, আনোয়ার, হাফিজুল ও লিটন নামে আরও চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা ক্লাবের স্টাফ। তাদের বিরুদ্ধে ধানমন্ডি থানায় অস্ত্র ও মাদক আইনসহ একাধিক মামলা করা হবে।উল্লেখ্য, অভিযান শুরুর আগে আজ দুপুরে ক্লাবের সভাপতি শফিকুল আলমকে র‌্যাব-২–এর কার্যালয়ে নেওয়া হয়। কয়েক ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে তাকে নিয়ে ক্লাবে অভিযান শুরু হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares